মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ ডিসেম্বর ২০১৫

উত্তম চর্চা সমূহ

বাংলাদেশ রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের প্রচলিত সদাচার চর্চার তালিকাঃ

১  বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (অচঅ) বাস্তবায়নঃ

অত্র প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন এবং প্রতিষ্ঠানের কর্মকান্ডের গুনগত ও পরিমানগত মূল্যায়নের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (অচঅ) এর আওতায় আনা হয়েছে।

২   কর্মকালীন প্রশিক্ষণ আয়োজনঃ

কর্মকর্তা/কর্মচারীদের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি এবং নিজেদের সময়োপযোগী করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কর্মকালীন প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।

৩  প্রশিক্ষণার্থীদের সচেতনতা বৃদ্ধিঃ

বাল্যবিবাহ , যৌতুক, নারী নির্যাতন এবং আবহাওয়া ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা  সংক্রান্ত বিষয়ের উপর প্রশিক্ষনার্থীদের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রতিটি প্রশিক্ষণ কোর্সে ক্লাস অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

৪   মোবাইল এ্যাপসের মাধ্যমে সেবা প্রদানঃ

অত্র প্রতিষ্ঠানের “সেরিকালচার ইনফরমেশন” নামক একটি মোবাইল এ্যাপ্লিকেশন তৈরী করা হয়েছে। এই মোবাইল এ্যাপ্লিরকেশনে বাংলা ভাষায় রেশম চাষ সম্পর্কীত সকল তথ্য ছবিসহ উপস্থাপন করা হয়েছে। যার ফলে রেশমচাষ, তুঁত ও রেশমকীটের জাত পরিচিতি, তুঁতচাষ ও পলুপালন কলাকৌশল, তুঁত ও রেশমকীটের রোগবালাই দমন ও প্রতিকার, রেশমগুটি প্রক্রিয়াকরণ সম্পর্কীত সেবা চাষীগণ মোবাইলের মাধ্যমে সহজে পেয়ে থাকেন।

৫   “ওয়ান স্টপ সার্ভিস ডেস্ক” চালুকরণঃ

জনগণের সেবা প্রদান ব্যবস্থা সহজীকরণের লক্ষ্যে অত্র প্রতিষ্ঠানে একটি “ওয়ান স্টপ সার্ভিস ডেস্ক” চালু করা হয়েছে। এই ডেস্কের মাধ্যমে জনগন তাদের চাহিত নির্ধারিত সেবাসমুহ দ্রুত পেয়ে থাকেন।

৬  সিটিজেন চার্টার

নাগরিক সেবা প্রদানের লক্ষ্যে সিটিজেন চার্টার প্রতিষ্ঠানের সন্মুখ স্থানে প্রদর্শিত হচ্ছে।

৭   বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী পদক্ষেপ গ্রহণঃ

বাংলাদেশ রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউটের বিদ্যুৎ সাশ্রয় ও বৈদ্যুতিক নিরাপত্তা বিধানের লক্ষ্যে সকল কর্মকর্তা/কর্মচারী অফিস কক্ষে অনুপস্থিত সময়ে এসি, ফ্যান, লাইট ও অনান্য বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি বন্ধ রাখেন এবং তা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে অত্র প্রতিষ্ঠানের কেয়ার টেকারের মাধ্যমে তদারকি করা হয়।

৮  শাখা পরিদর্শনঃ

চলমান উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতি মনিটরিং করার জন্য প্রতিষ্ঠানের পরিচালক নিয়মিতভাবে প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন শাখাসমূহ পর্যায়ক্রমে পরিদর্শন করেন এবং পরিদর্শন প্রতিবেদন ও মতামত পরবর্তীতে সকল শাখাকে অবহিত করেন। এর ফলে সংশ্লিষ্ট শাখার গবেষণা কার্যক্রম বাস্তবায়ন তরান্বিত হচ্ছে।

৯. কর্মচারীদের ড্রিলঃ 

প্রতিষ্ঠানে কর্মরত চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের নিয়মিতভাবে প্রতি বৃহস্পতিবার সকাল ১০.৩০-১১.০০ পর্যন্ত অফিস তত্ত্বাবধায়ক এর তত্ত্বাবধানে ড্রিল অনুষ্ঠিত হয়। এর মাধ্যমে কর্মচারীদের নিজ নিজ দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে ধারণা ও নির্দেশনা প্রদান করা হয় ফলে তারা নিজ দায়িত্ব সঠিকভাবে পালনে উৎসাহিত হন এছাড়াও কাজের গুণগতমান বৃদ্ধি পায়।


Share with :
Facebook Facebook